iyf

রাজ্যে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা বাতিলের সিদ্ধান্তকে পুনর্বিবেচনা করার দাবি IYF-এর

করোনা মহামারী প্রাদুর্ভাবের পর লকডাউনের জেরে গত বছর থেকেই বন্ধ স্কুল, কলেজ, ইউনিভার্সিটিসহ সমস্ত ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। করোনার প্রথম ঢেওয়ের পর যখন আক্রান্তের সংখ্যা ধীরে ধীরে কমতে শুরু করে তখন বেসরকারি কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুললেও বন্ধ রাখা হয় সরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে। নতুন বছরে নতুন করে সরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো খোলা হবে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা এই আশা নিয়ে ছিলেন, কিন্তু সরকার করোনা আবহে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার ঝুঁকি নেইনি। ফলস্বরূপ গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষাকেও জুন মাস পর্যন্ত বিলম্বিত করা হয়।

পরীক্ষার্থীরা পরীক্ষা আগমনের প্রহর গুনছিলো, এরই মাঝে এসে পড়ে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ, কিন্তু এর মাঝে ও জারি থাকে ভোটের প্রচার। ভোট শেষ হতে না হতেই জারি হয় লকডাউন। লকডাউনের মাঝে জল্পনা চলছিল পরীক্ষা হওয়া না হওয়া নিয়ে, আর এই জল্পনার মাঝেই মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা বাতিলের ঘোষণা দেয় রাজ্য সরকার। পরীক্ষা বাতিলের পর রাজ্যজুড়ে শুরু হয়েছে সমালোচনা। এরই মাঝে পরীক্ষার্থীদের আত্মহত্যার খবরও উঠে এসেছে।

এই পরিস্থিতিতে, পরীক্ষা বাতিলের সিদ্ধান্তকে পুনর্বিবেচনা করার দাবি জানিয়েছেন, ইসলামিক ইয়ুথ ফেডারেশন-এর পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সভাপতি জনাব নুর ইসলাম সাহেব।তিনি এক বার্তায় রাজ্য সরকারকে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা বাতিলের সিদ্ধান্তকে পুনর্বিবেচনা করার এবং এই মুহূর্তে নাহলেও কিছুদিন অপেক্ষা করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষা নেওয়ার দাবি জানান। ইতিমধ্যেই পরীক্ষা বাতিলের সিদ্ধান্তের পর পরিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মাঝে হতাশা সৃষ্টি হয়েছে। তিনি বিষয়টিকে গুরুত্ব ও সহানুভূতির সঙ্গে বিবেচনা করার জন্য মুখ্যমন্ত্রীর নিকট দাবী জানিয়েছেন।

       ওয়াসসালাম,
 মোহাঃ জইদুর রহমান
   মিডিয়া সেক্রেটারি

ইসলামিক ইয়ুথ ফেডারেশন
পশ্চিমবঙ্গ

এই প্রতিবেদন শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

CAPTCHA