করোনা

করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বিশ্বে ২০ লক্ষ ছাড়াল

করোনা ভাইরাসের থামার কোন লক্ষণই দেখা যাচ্ছে না আপাতত। বিশ্বজুড়ে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা আজকে ২০ লক্ষ ছাড়িয়ে গেল। এখনো পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে সর্বাধিক আক্রান্ত হয়েছে আমেরিকায়। সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা ৬ লক্ষ পার হয়ে গেছে। তারপরেই রয়েছে ইউরোপ মহাদেশের ৫টি দেশ।  স্পেন, ইতালি, ফ্রান্স ও জার্মানিতে আক্রান্তের সংখ্যা লক্ষাধিক করে। এদিকে চিনে আবার নতুন করে সংক্রমণের আশংকা শুরু হয়েছে বিগত দুই তিন দিন থেকে। সাথে সাথেই আরেক ইউরোপীয় দেশ ইংল্যান্ডেও এর প্রভাব মারাত্মক ভাবে দেখা দিয়েছে। সেখানের মোট সংক্রমণের সংখ্যা প্রায় ৯৪ হাজার। আর মৃত ১২ হাজার ছাড়িয়ে গিয়েছে।

আগের খবর পড়ুন 

করোনা ভাইরাস, Coronavirus

এদিকে মৃত্যুর দিক থেকেও আমেরিকা দুনিয়ায় এক নম্বরে আছে। এখানে মোট মৃতের সংখ্যা ২৬ হাজার ৬৪ জন। এরপরে রয়েছে ইতালির অবস্থান। সেখানে মারা গিয়েছেন ২১ হাজার ৬৭ জন।

বিশ্বে করোনা ভাইরাস

ভারতে 

এদিকে ভারতের এই মারণ ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে দিনের পর দিন। এখনো পর্যন্ত ভারতে ১১ হাজার ৪৪৭ জন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে প্রায় ৪০০ জনের। গত কালই দেশে ১০ হাজারের গণ্ডি পার করেছিল তা। পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় এক লাফে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে হাজারেরও উপর। সেই সঙ্গে সংক্রমণের জেরে মৃতের সংখ্যাও বেড়েছে। বুধবার সকালে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, দেশে মোট সংক্রমিতের সংখ্যা ১১ হাজার ৪৩৯। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছে, এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৩০৬ জন। অন্য দিকে, এখনও পর্যন্ত এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশ জুড়ে ৩৭৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১ হাজার ৭৬ জন।

দেশের বিভিন্ন রাজ্যের করোনা-পরিসংখ্যানে সবচেয়ে উদ্বেগ বাড়িয়েছে মহারাষ্ট্র। ওই রাজ্যের পাশাপাশি দিল্লি এবং তামিলনাড়ুতেও সংক্রমিতের সংখ্যা ক্রমশই বাড়ছে। এই তিন রাজ্য ছাড়া রাজস্থানেও করোনা-আক্রান্তের সংখ্যা (৯৬৯) প্রায় হাজার ছুঁইছুই। তবে চিকিৎসকরা এ-ও জানিয়েছেন যে, দেশ জুড়ে পরীক্ষার সংখ্যা বেড়েছে। এর ফলে নতুন আক্রান্তের সন্ধান মিলছে।

মহারাষ্ট্রে আক্রান্তের সংখ্যা ইতিমধ্যেই আড়াই হাজারের গণ্ডি ছা়ড়িয়েছে। বাণিজ্য নগরীতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ হাজার ৬৮৭। ইতিমধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১৭৮ জনের। এই পরিসংখ্যানের পাশপাশি কেন্দ্র তথা উদ্ধব ঠাকরে সরকারের উদ্বেগ আরও বাড়িয়েছে রাজ্যের চিকিৎসা পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত কর্মীদের ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবরে।

 

এই প্রতিবেদন শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

CAPTCHA