রাজস্থানে আফরাজুলের নৃশংস হত্যার প্রতিবাদে মুখর ইউথস ইসলামিক আসোসিয়েশন

নিজস্ব প্রতিনিধি,ডিএনএম,মালদা,৮ডিসেম্বরঃ
মালদা জেলার কালিয়াচকের সৈয়দ পুর গ্রামের শ্রমিক আফরাজুল হক কে লাভ জিহাদের নামে নৃশংস ভাবে খুন করা হয় রাজস্থানের রাজসামান্দ্ জেলায় গত বুধবার।এই বর্বরোচিত হত্যা কাণ্ডের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে ছাত্র-যুব সংগঠন ইউথস ইসলামিক আসোসিয়েশন।সংগঠনের পক্ষ থেকে এদিন এক প্রেস বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে বলা হয়েছে ভারতবর্ষ একটি গণতান্ত্রিক, ধর্মনিরপেক্ষ দেশ।এখানে বিভিন্ন জাতি,ধর্ম,বর্ণ ও গোত্রের মানুষের বাস।কিন্তু এদেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির পরিবেশ আজ রাজনৈতিক উগ্র হিন্দুত্ববাদীদের দ্বারা আক্রান্ত ও বিপন্ন।২০১৪ সালে কেন্দ্রে বিজেপি সরকার গঠন হওয়ার পর দেশের বিজেপি শাসিত রাজ্য গুলিতে মুসলিম, দলিত ও নিম্ন বর্ণের সম্প্রদায়ের মানুষ কে কখনো গোরক্ষার নামে কখনো লাভ জিহাদের নামে হত্যা করা হচ্ছে।দুষ্কৃতী শম্ভুলাল রেগার বছর পঞ্চাশের আফরাজুল হক কে কুপিয়ে মাটিতে ফেলে তাঁর গায়ে কেরোসিন ঢেলে জ্বালিয়ে দেয়।আর এই নৃশংসতা ভিডিও রেকর্ড করে প্রচার করা হয়।কারো বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ থাকলে দেশের আইন অনুযায়ী তাঁর বিচার করতে হবে।কিন্তু নিছক সন্দেহের বশে নিজ হাতে আইন তুলে নিয়ে এই ভাবে কোন মানুষকে প্রকাশ্যে জ্যান্ত জ্বালিয়ে হত্যা করা খুবই উদ্বেগজনক ব্যাপার বলে মনে করে ইউথস ইসলামিক আসোসিয়েশন।সংগঠনের পক্ষ থেকে এই ধরনের নারকীয়, বীভৎস ও অমানবিক হত্যার তীব্র নিন্দা জানানো হয়েছে।সংগঠনের রাজ্য সভাপতি বাহারুল ইসলাম খুনি শম্ভুলালের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি ও নিহত আফরাজুলের পরিবারকে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ সেই সঙ্গে তাঁর পরিবারের একজন সদস্যকে সরকারি চাকুরি প্রদানের জন্য সরকারের কাছে দাবি জানান।সরকারের উচিৎ এই নৃশংসতা অবিলম্বে বন্ধ করার জন্য পদক্ষেপ গ্রহণ করা। দেশের সকল শুভবুদ্ধি সম্পন্ন মানুষকে ঐক্যবদ্ধ ভাবে এই অন্যায়ের তীব্র প্রতিবাদ করার আহ্বান জানিয়েছে সংগঠন টি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *