কলকাতায় ইয়ুথস ইসলামিক অ্যাসোসিয়েশন – YIA এর রাজ্য কনভেনশন


নিজস্ব প্রতিবেদক,ডি.এন. এম,কলকাতা,১৫অক্টোবর:ছাত্র যুব সংগঠন ইয়ুথস ইসলামিক আসোসিয়েশন বিপন্ন মানবতা কে মুক্তির পথ দেখাতে এক প্রচার অভিযানের আয়োজন করে গত ১৫ই সেপ্টেম্বর ২০১৭।”নিরাশ হয়োনা নিশ্চয় আল্লাহ আমাদের সাথে আছেন”কুরআনের এই আয়াত ই হল প্রচার অভিযানের মূল বিষয় বস্তু।এই বিষয় কে সামনে রেখে এক মাস ব্যাপী প্রচার অভিযান আজ ১৫ই অক্টোবর রাজ্য কনভেনশনের মাধ্যমে শেষ হল।এদিন কলকাতা মুসলিম ইনস্টিটিউট হলে উক্ত কনভেনশন অনুষ্ঠিত হয় বেলা দশ টায়,পবিত্র কুরআন তিলাওয়াত এর মাধ্যমে।তিলাওয়াত করেন মুজাহিদুল ইসলাম বাংলা তরজমা পেশ করেন রুহুল আমিন।উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন কনভেনশনের কনভেনর মহম্মদ রফিকুল ইসলাম।তিনি তাঁর বক্তব্যে প্রচার অভিযান ও কনভেনশনের লক্ষ্য উদ্দেশ্য তুলে ধরেন।সভার প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ফেডারেশন অফ ইসলামিক ইয়ুথ অর্গানাইজেশনস এর জাতীয় কনভেনর ডঃ ওয়াজিহ-উল কামার সাহেব।তিনি তাঁর বক্তব্যে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পরিস্থিতির উপর অলোক পাত করে বলেন-বর্তমানে দেশে মুসলিম,দলিত ও অন্যান্য নিম্ন বর্ণের মানুষের উপর পরিকল্পিতভাবে আক্রমণ করে হচ্ছে।এই প্রেক্ষাপটে বিপন্ন মানবতার পাশে দাঁড়াতে দেশের সকল শুভ বুদ্ধি সম্পন্ন মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।দেশের ছাত্র-যুবদের গুরুদায়িত্ব পালন করতে হবে বলে তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন।তিনি আরো জানান পরিস্থিতি যেমনই হোক মুসলমান ইসলাম ও ইসলামী আদর্শ কোন মতেই পরিত্যাগ করতে পারে না।প্রকৃত মুসলিম কে আল্লাহ যেকোনো খারাপ পরিস্থিতি থেকে উদ্ধার করবেন যেমন ইব্রাহিম(আ:),মুসা(আ:),ঈশা(আ:) ও শেষ নবী মুহাম্মদ(সা:)কে মুশরিকদের ষড়যন্ত্র ব্যর্থ করে উদ্ধার করেছেন।দেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখার জন্য তিনি জাতিধর্ম নির্বিশেষে সকলকেই ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান।সভায় বক্তব্য রাখেন বিশ্বকোষ পরিষদের সম্পাদক পার্থ সেন গুপ্ত। তিনি যেকোন অন্যায় অত্যাচারের বিরুদ্ধে প্রবল প্রতিবাদ প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানান।গোরক্ষার নামে ১৭বছরের কিশোর জুনায়েদের হত্যার তীব্র প্রতিবাদ করেন। এছাড়াও আখলাক হত্যা কাণ্ডে অভিযুক্ত ব্যক্তিদের সরকারি চাকরি প্রদানের কঠোর সমালোচনা করেছেন।নতুন গতি পত্রিকার সম্পাদক এমদাদুল হক নুর বলেন মুসলিম দের মধ্যে একটি বুদ্ধিজীবী গোষ্ঠী গড়ে তুলতে হবে।যারা মুসলিম তথা ইসলামের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে তার যুক্তিপূর্ণ ও তথ্য সমৃদ্ধ জবাব দিতে হবে।বিশিষ্ট লেখক আবু রিদা মুসলিম পার্সনাল ল’এর উপর কেন্দ্রীয় সরকারের হস্তক্ষেপের তীব্র নিন্দা করে সামগ্রিক ভাবে ভারতীয় নারীদের সামাজিক সুরক্ষা প্রদান করতে বলেন।বরং মুসলিম সম্প্রদায়ের নারীদের থেকে অমুসলিম সম্প্রদায়ের নারীরা সবথেকে বেশি নির্যাতিত।কালিয়াচক কলেজের অধ্যক্ষ ড.নজিবর রহমান তাঁর বক্তব্যে বলেন-মুসলমান দের আধুনিক শিক্ষার সঙ্গে ইসলামী শিক্ষা ও অর্জন করতে হবে।হতাশ না হয়ে বুদ্ধি মত্তার সঙ্গে আল্লাহর উপর নির্ভর করে পরিস্থিতি র মোকাবেলা করতে হবে।তিনি মুসলিম ও এসটি,এসসি,ওবিসি দের উপর আক্রমণের নিন্দা জানান।এছাড়াও বক্তব্য রাখেন দেওয়ান আব্দুল গনি কলেজের অধ্যাপক তথা সমাজসেবী ড.মহম্মদ ইসমাইল,সংগঠনের রাজ্য সভাপতি বাহারুল ইসলাম প্রমুখ।সভায় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সম্পাদক মহম্মদ আলী হাসান সরকার, আমানত ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান শাহ আলম,শিক্ষক রমজান আলী প্রমুখ ছাড়াও বহু বিশিষ্ট জন।উপস্থিত বুদ্ধিজীবী গণ মুসলিম,দলিত দের উপর অত্যাচারের তীব্র নিন্দা করেছেন, সেই সঙ্গে এই প্রচার অভিযানের বিষয় বস্তুকে খুবই প্রাসঙ্গিক বলে জানিয়েছেন।সমগ্র অনুষ্ঠান টি সুচারুভাবে সঞ্চালনা করেন মহম্মদ হাবিবুল্লাহ।আসিফ ইকবাল ও রফিকুল ইসলামের সুললিত কণ্ঠের ইসলামী সংগীত অনুষ্ঠানে ভিন্ন মাত্রা প্রদান করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *