পৃথিবীর সপ্তম আশ্চর্য তাজমহল আর নেই পর্যটন স্থল তালিকায়

উত্তর প্রদেশের আগ্রায় যমুনা নদীর তীরে শ্বেত পাথরে তৈরি করা অলৌকিক সুন্দরত্বের ছবি ‘তাজমহল’ না শুধু ভারতবর্ষে, বরং সমগ্র বিশ্ব জুড়ে তার পরিচয় তৈরি হয়েছে। প্রেমের এই নিশানী দেখার জন্য দূর দেশ থেকে হাজারো হাজারো পর্যটক এখানে আসেন। কারণ তাজমহল প্রেম এবং ভারত এর অভিন্ন স্বীকৃতিতে পরিনত হয়েছে।
কিন্তু পৃথিবীর সপ্তম আশ্চর্যের মধ্যে শুমার ভারতের তাজমহলকে উত্তর প্রদেশের যোগী সরকার তার পর্যটন স্থান তালিকা থেকে বের করে দিয়েছে। উল্লেখ্য যে, এর আগেই যোগী সরকার ‘তাজমহল’ ভারতের ‘সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য’ হিসাবে মানতে অস্বীকৃত জানিয়েছে।
মিডিয়া রিপোর্ট মুতাবিক যোগী সরকার দ্বারা তৈরী উত্তরপ্রদেশ পর্যটন স্থলের বুকলেটে তাজমহলের নাম দেওয়া হয়নি। অবশ্য এই বিষয়ে উত্তর প্রদেশ সরকারের পক্ষ থেকে কোনো আধিকরিক বয়ান দেওয়া হয়নি। কিন্তু সোসাল মিডিয়ায় এই বিষয়কে নিয়ে যথেষ্ট হাঙ্গামা শুরু হয়ে গেছে।
প্রকৃতপক্ষে, ইউপি সরকার প্রতি বছর পর্যটন মন্ত্রনালয় অফিশিয়াল বুকলেট বের করে থাকে। এই বুকলেটটিতে রাজ্যের সব বড় পর্যটন স্থান সম্পর্কে বর্নণা থাকে এবং সেই পর্যটন কেন্দ্রেরগুলির ছবিও এই বুকলেটটি ছাপা হয়। কিন্তু এই বারের বুকলেট বিবাদে ঘিরে গেছে কারণ এতে তাজমহলকে স্থান দেওয়া হয়নি।


গোরখনাথ মন্দির ও অযোধ্যাকে দেওয়া হয়েছে স্থান

এই বারের নতুন বুকলেটটি গোরখপুরের গোরখনাথ মন্দিরকে বিশেষভাবে স্থান দেওয়া হয়েছে।
এবারের বুকলেটের আরেকটি বিশেষ বৈশিষ্ট্য হচ্ছে এবার অযোধ্যকেও অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। Booklet এর বারো এবং তেরো নং পৃষ্ঠাতে অযোধ্যা সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে উল্লেখ করা হয়েছ। ইকো টুরিজিম থেকে মন্দির টুরিজিম পর্যন্ত এই বুকলেটটিতে স্থান পেয়েছে কিন্তু স্থান পায়নি তাজমহল ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *